বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন
  • ৯ কার্তিক, ১৪২৪
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

ভারতের কাছে ২০৮ রানে হারলো বাংলাদেশ


প্রকাশন তারিখ : 2017-02-14

হায়দারাবাদ টেস্টে ভারতের কাছে ২০৮ রানে হেরে গেল সফরকারী বাংলাদেশ। ভারতের ছুঁড়ে দেয়া ৪৫৯ রানের টার্গেটে ম্যাচের পঞ্চম ও শেষ দিনে চা-বিরতির ঠিক আগে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ২৫০ রানে গুটিয়ে যায় টাইগাররা। ফলে এক ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ১-০ ব্যবধানে জিতে নেয় বিরাট কোহলির দল। প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেটে ৬৮৭ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেটে ১৫৯ রানে ইনিংস ঘোষণা করেছিলো ভারত। আর প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ করেছিলো ৩৮৮ রান।
হায়দারাবাদ টেস্টের চতুর্থ দিন ৪৫৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ৩ উইকেটে ১০৩ রান তুলে দিন শেষ করেছিলো বাংলাদেশ। ফলে সিরিজের একমাত্র টেস্ট জয়ের জন্য ম্যাচের পঞ্চম ও শেষ দিনে ৩৫৬ রান প্রয়োজন পড়ে বাংলাদেশের। আর ভারতের দরকার পড়ে ৭ উইকেট।
সেই লক্ষ্যে পঞ্চম দিনের শুরুটা চমৎকারই করে ভারত। দিনের ১৫তম বলেই বাংলাদেশের সাকিব আল হাসানের উইকেট তুলে নেয় টিম ইন্ডিয়া। ২১ রান নিয়ে শুরু করা সাকিব ২২ রানেই থেমে যান রবীন্দ্র জাদেজার বলে।
এরপর লড়াইয়ের আভাস দেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। দু’জনের ব্যাটিং দৃৃঢ়তায় সাকিবকে হারানোর কষ্টটা ভুলতে শুরু করেছিলো বাংলাদেশ। কিন্তু জুটিতে ৫৬ রানের আসার পর মুশির উইকেট তুলে নিয়ে বাংলাদেশকে আরও একটি ধাক্কা দেন ভারতের সেরা স্পিনার রবীচন্দ্রন অশ্বিন। প্রথম ইনিংসে ১২৭ রান করা মুশফিকুর এবার থামেন ২৩ রানে।
অধিনায়ককে হারানোতেও ভেঙ্গে পড়েননি ৯ রান নিয়ে দিন শুরু করার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। সাত নম্বরে নামা সাব্বির রহমানকে নিয়ে ক্রিজে টিকে থাকার লড়াই শুরু করেন তারা। সর্তক অবস্থায় বেশ ভালোই এগোচ্ছিলেন মাহমুদুল্লাহ ও সাব্বির। কিন্তু ভারতের পেসার ইশান্ত শর্মার স্লেজিং ও বোলিং টেকনিকের ফাঁদে পা দেন সাব্বির। এতে ২২ রানে লেগ বিফোর ফাঁদে পড়েন সাব্বির। রিভিউ নিয়েও নিজেকে রক্ষা করতে পারেননি সাব্বির।
সাব্বিরের সাথে জুটিতে ৫১ রান যোগ করা মাহমুদুল্লাহও ফিরেছেন ইশান্তের বোলিং টেকনিকের ফাঁদে পড়ে। স্টাম্প বরাবর একনাগারে বল করে মাহমুদুল্লাহকে ফ্রন্টফ্রুটে খেলার অভ্যাস করে ফেলেন ইশান্ত। এরপর হঠাৎ বাউন্সার দিয়ে বসেন ইশান্ত। ঐ বাউন্সারটি পুল করে লং লেগে ক্যাচ দিয়ে নিজের উইকেটের বির্সজন দেন মাহমুদুল্লাহ। আউট হবার আগে দুর্দান্ত লড়াইয়ে টেস্ট ক্যারিয়ারের ১৩তম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। ১০ ইনিংস পর বড় ফরম্যাটে হাফ-সেঞ্চুরি পাওয়া মাহমুদুল্লাহ, এবার থামেন ৬৪ রানে। তার ১৪৯ বলের ইনিংসে ৭টি চার ছিলো।
দলীয় ২২৫ রানে সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে মাহমুদুল্লাহ’র বিদায়ের পর বাংলাদেশের হার সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু ভারতকে জয়ের স্বাদ দিতে বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করান বাংলাদেশের লোয়ার-অর্ডার। মাহমুদুল্লাহ’র বিদায়ের পর শেষ চার ব্যাটসম্যান খেলেছেন ১৫০ বল। প্রথম ইনিংসে ১০৭ বলে ৫১ রান করা মেহেদি হাসান মিরাজ এবার করেন ৬১ বলে ২৩, কামরুল ইসলাম রাব্বি ৭০ বলে ৩, তাইজুল ইসলাম ২৪ বলে ৬ ও তাসকিন আহমেদ ৭ বলে ১ রান করেন।
লাঞ্চের কিছুক্ষণ আগে বাংলাদেশের শেষ ব্যাটসম্যান তাসকিনকে তুলে নিয়ে সফরকারীদের ২৫০ রানেই আটকে দেন ভারতের অশ্বিন। ফলে বাংলাদেশের বিপক্ষে নবম টেস্টে সপ্তম জয়ের স্বাদ নেয় ভারত। পাশাপাশি এই নিয়ে টানা ষষ্ঠ সিরিজ জিতলো র‌্যাংকিং-এর এক নম্বর দল ভারত। এই ইনিংসে ভারতের পক্ষে ৪টি করে উইকেট নিয়েছেন অশ্বিন ও জাদেজা। প্রথম ইনিংসে ২০৪ রান করায় ম্যাচের সেরা হয়েছেন ভারতের অধিনায়ক কোহলি।
স্কোর কার্ড :
ভারত প্রথম ইনিংস : ৬৮৭/৬ডি, ১৬৬ ওভার (কোহলি ২০৪, বিজয় ১০৮, সাহা ১০৬*, তাইজুল ৩/১৫৬, মিরাজ ২/১৬৫)।
বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস : ৩৮৮/১০, ১২৭.৫ ওভার (মুশফিকুর ১২৭, সাকিব ৮২, মিরাজ ৫১, উমেশ ৩/৮৪)।
ভারত দ্বিতীয় ইনিংস : ১৫৯/৪ ডি, ২৯ ওভার (পূজারা ৫৪*, কোহলি ৩৮, তাসকিন ২/৪৩)।
বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস (আগের দিন ৩/১০৩) :
তামিম ইকবাল ক কোহলি ব অশ্বিন ৩
সৌম্য সরকার ক রাহানে ব জাদেজা ৪২
মোমিনুল হক ক রাহানে ব অশ্বিন ২৭
মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ক কুমার ব ইশান্ত ৬৪
সাকিব আল হাসান ক পূজারা ব জাদেজা ২২
মুশফিকুর রহিম ক জাদেজা ব অশ্বিন ২৩
সাব্বির রহমান এলবিডব্লু ব ইশান্ত ২২
মেহেদি হাসান মিরাজ ক সাহা ব জাদেজা ২৩
কামরুল ইসলাম রাব্বি অপরাজিত ৩
তাইজুল ইসলাম ক রাহুল ব জাদেজা ৬
তাসকিন আহমেদ এলবিডব্লু ব অশ্বিন ১
অতিরিক্ত (বা-৪, লে বা-৭, নো-৩) ১৪
মোট (অলআউট, ১০০.৩ ওভার) ২৫০
উইকেট পতন : ১/১১ (তামিম), ২/৭১ (সৌম্য), ৩/৭৫ (মোমিনুল), ৪/১০৬ (সাকিব), ৫/১৬২ (মুশফিকুর), ৬/২১৩ (সাব্বির), ৭/২২৫ (মাহমুদুল্লাহ), ৮/২৪২ (মিরাজ), ৯/২৪৯ (তাইজুল), ১০/২৫০ (তাসকিন)।
ভারত বোলিং :
ভুবেনশ্বর কুমার : ৮-৪-১৫-০।
রবীচন্দ্রন অশ্বিন : ৩০.৩-১০-৭৩-৪।
ইশান্ত শর্মা : ১৩-৩-৪০-২ (নো-৩)।
উমেশ যাদব : ১২-২-৩৩-০।
রবীন্দ্র জাদেজা : ৩৭-১৫-৭৮-৪।
ফলাফল : ভারত ২০৮ রানে জয়ী।
সিরিজ : এক ম্যাচের সিরিজ ১-০ ব্যবধানে জিতে নিলো ভারত।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : বিরাট কোহলি (ভারত)।