বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন
  • ১ পৌষ, ১৪২৪
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১১ জানুয়ারি ২০১৭

কর ও ভ্যাট শিক্ষণ ফোরামের আওতা সারাদেশে ছড়িয়ে দেবে এনবিআর


প্রকাশন তারিখ : 2017-01-11

ভবিষ্যত করদাতা সৃষ্টি এবং শিক্ষার্থীদের কর ও ভ্যাট বিষয়ে ধারণা দিতে ‘কর শিক্ষণ ফোরাম’ ও ‘ভ্যাট শিক্ষণ ফোরাম’ এর মতো উদ্ভাবনী পদ্ধতি আবিষ্কার করেছে জাতীয় রাজন্ব বোর্ড (এনবিআর)। এরই আওতায় এনবিআর শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিভিন্ন আয়োজন করছে।
চলতি বছরের আয়কর মেলায় কর শিক্ষণ ফোরাম ও ভ্যাট সপ্তাহে ভ্যাট শিক্ষণ ফোরামে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি,মেলায় অংশগ্রহণ করে বিভিন্ন স্টল ঘুরে কর ও ভ্যাট বিষয়ে জ্ঞান লাভের পর প্রতিযোগিতা আয়োজন করে এনবিআর। রাজধানীর বিভিন্ন স্কুল,কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে এ ফোরামের কার্যক্রম ব্যাপক সাড়া মেলে। এ ফোরামের আওতা রাজধানীসহ সারাদেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছড়িয়ে দেয়ার দাবি ছিল শিক্ষার্থীদের। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড -এর চেয়ারম্যান এ ফোরামের আওতা সারাদেশে ছড়িয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।
এরই অংশ হিসেবে মঙ্গলবার রাজধানীর কাকরাইলস্থ আইডিইবি ভবনে ‘বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস’ ও ‘উন্নয়ন মেলা -২০১৭’ উপলক্ষে কর ও ভ্যাট শিক্ষণ ফোরাম শিক্ষার্থীদের নিয়ে দিনব্যাপী আলোচনা,প্রশ্নোত্তর ও কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে এনবিআর।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম স্কাইপি ব্যবহার করে ভিডিও কলের মাধ্যমে ফোরামের উদ্বোধন করেন ফোরামের উদ্ভাবক এনবিআর চেয়ারম্যান মোঃ নজিবুর রহমান।
ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ, মতিঝিল সরকারি বালক ও বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশাপাশি প্রথমবারের মতো ঢাকা সরকারি আলিয়া মাদ্রাসার শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কর্মকর্তাসহ প্রায় তিন শতাধিক ব্যক্তিবর্গ এতে অংশগ্রহণ করেন। দেশের স্কুল, কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে কর ও ভ্যাট বিষয়ক সচেতনতা তৈরিসহ ভবিষ্যত প্রজন্মকে কর প্রদানে উৎসাহিত করাই এ আয়োজনের উদ্দেশ্য।
অনুষ্ঠানে এনবিআর সদস্যরা উপস্থিত থেকে ভবিষ্যত করদাতা শিক্ষার্থীদের কর বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। শিক্ষার্থীরা করের আওতা বাড়ানো,করসেবা অনলাইন ভিত্তিক করা,কর আহরণ ও সারাদেশের মানুষের মধ্যে কর বিষয়ে সচেতনতা তৈরিতে করের বিভিন্ন দিক পাঠ্য বইয়ে অর্ন্তভূক্ত করা, প্রচারণা ও করভীতি দূর করতে শিক্ষার্থীদের সহায়তা নেয়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের কর বিষয়ে প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
অভিব্যক্তি ব্যক্ত করে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বলেছেন,কর ও ভ্যাট কি, কিভাবে আহরিত হয়, কোথায় ব্যবহৃত হয় সে বিষয়ে জানা ছিল না। এ ফোরামের মাধ্যমে জানা হয়েছে। কর ও ভ্যাট শিক্ষণ ফোরামের আওতায় সারাদেশে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন শিক্ষার্থীরা।
অনুষ্ঠানে-শিক্ষার্থীদেরকে ভ্যাট ও আয়কর বিষয়ক টিভিসি ও ডকুমেন্টারি প্রর্দশন করা হয়। রাজস্ব বোর্ডের বিভিন্ন ফ্লায়ার ও লিফলেট বিতরণ করা হয়। ভ্যাট অনলাইন থেকে প্রস্তাবিত নতুন ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২ এর বৈশিষ্ট বর্ণনা করা হয়। ভ্যাট অনলাইনের শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করা হয়। দেশের আগামী দিনের কান্ডারী শিক্ষার্থীদের রাজস্ব নিয়ে বিভিন্ন ধরণের ধারণাও দেয়া হয়।
পরে শিক্ষার্থীরা টিভিসি ও ডকুমেন্টারির ওপর কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। প্রতিযোগিতায় সেরা দশজন শিক্ষাথীর্কে বাছাই করে পুরস্কৃত করা হয়। সেরা শিক্ষার্থী ও শিক্ষকগণকে পৃথকভাবে সম্মাননা ও সনদপত্র প্রদান করেন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সদস্য পারভেজ ইকবাল,মো. রেজাউল হাসান ও বিসিএস কর একাডেমির মহাপরিচালক ড. ফেরদৌস আলম। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের এমন ব্যতিক্রমী আয়োজনে উৎফুল্ল ও মুগ্ধ। তারা ভবিষ্যতেও বছরব্যাপী এমন আয়োজন অব্যাহত রাখাতে এনবিআরকে অনুরোধ জানান।