বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন
  • ৪ পৌষ, ১৪২৪
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩rd ডিসেম্বর ২০১৭

এসডিজির লক্ষ্য অর্জনে মানবসম্পদ মুখ্য ভূমিকা রাখবে : আবুল কালাম আজাদ


প্রকাশন তারিখ : 2017-12-03

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মোঃ আবুল কালাম আজাদ বলেছেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে মানবসম্পদই মুখ্য ভূমিকা রাখবে। মানুষের সামগ্রিক দক্ষতা উন্নয়নের উপর সরকারের সফলতা নির্ভর করছে উল্লেখ করে এসডিজির লক্ষ্য অর্জনে তিনি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের অন্যতম সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করার আহ্বান জানান।
রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি)’র ৪৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও গণপ্রকৌশল দিবস উপলক্ষে শনিবার সকালে এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এক কথা বলেন।
সংগঠনের সভাপতি এ কে এম এ হামিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিল্কড ফর এসিভিং এসডিজি শীর্ষক সেমিনারে
প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ আলমগীর ও এনএসডিসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম খোরশেদ আলম এবং সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক আব্দুর রফিক। স্বাগত ও সূচনা বক্তব্য রাখেন আইডিইবি’র সাধারণ সম্পাদক মোঃ শামসুর রহমান।
এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মোঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন, সামগ্রিকভাবে মানবসম্পদ বিকশিত না হলে কোন উন্নয়ন প্রক্রিয়া স্থায়িত্ব পায় না।
তিনি বলেন, সরকার এসডিজি’র সফল বাস্তবায়নে দেশের ব্যাপক জনগোষ্ঠির জীবনমান উন্নয়ন ও দক্ষতাকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। মানব সমাজ অতীত থেকে যতই ভবিষ্যতের দিকে অগ্রসর হচ্ছে, ততই সমাজ দক্ষতাকেন্দ্রিক হচ্ছে। বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যেতে হলে আমাদের বিকাশমান প্রযুক্তিজ্ঞানে দক্ষ হবার কোন বিকল্প নেই। উন্নত বিশ্বের অর্থনীতির গতি সঞ্চার কিংবা উন্নয়নশীল দেশসমূহের আর্থিক স্বনির্ভরতার ক্ষেত্রে দক্ষতার বিষয়টি জোরালোভাবে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। কাজেই এসডিজি’র লক্ষ্য সাফল্যজনকভাবে অর্জনের জন্য আমরা বিশ্ব পরিক্রমার বাহিরে থাকতে পারি না বলে তিনি উল্লেখ করেন।
কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ আলমগীর বলেন, দক্ষতাভিত্তিক দেশ গড়ার লক্ষ্যে সরকার কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার ব্যাপক সম্প্রসারণের উদ্যোগ নিয়েছে। সেই লক্ষ্যে সরকার শিক্ষার মূল স্রোতধারায় টিভিইটি কে নিয়ে আসার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। টিভিইটি কে জনপ্রিয় করার লক্ষ্যে আইডিইবি বহুমাত্রিক কার্যক্রম গ্রহণ করায় তিনি সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ জানান।
আব্দর রফিক বলেন, সহ¯্রাব্ধ উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাংলাদেশের যে সাফল্য রয়েছে, সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে এসডিজি’র লক্ষ্য অর্জন সম্ভব।
অন্যাান্য বক্তারা বলেন, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য অর্জনের জন্য সরকার দেশের মানবসম্পদ উন্নয়নে বদ্ধপরিকর। বিশেষ করে দারিদ্র বিমোচন, সুস্বাস্থ্য, মানসম্মত শিক্ষা, সুপেয় পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা, নবায়নযোগ্য ও ব্যয়সাশ্রয়ী জ্বালানী, কর্মসংস্থান, উন্নত অবকাঠামো, জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাব, সামাজিক ন্যায় বিচার ইত্যাদি অর্জনে দক্ষ মানবসম্পদের কোন বিকল্প নেই।