বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন
  • ৯ কার্তিক, ১৪২৪
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৭ জানুয়ারি ২০১৭

৫১ লাখেরও পিছিয়ে পড়া মানুষ দুস্থ ভাতা পাচ্ছেন


প্রকাশন তারিখ : 2017-01-17

বর্তমান সরকারের ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্য নির্মূল করার নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার অংশ হিসেবে প্রতিমাসে ৫১ লাখ ২০ হাজার সুবিধাভোগী দুস্থ ভাতা পাচ্ছেন।
দারিদ্র্য বিমোচনের লক্ষ্যে বর্তমান সরকার ক্রমান্বয়ে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সার্বিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।
সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আজ বাসস’কে জানান, দেশ থেকে দারিদ্র্য নির্মূল সরকারসামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচির আওতায় ৫১ লাখ ২০ হাজার প্রতিবন্ধী, বয়স্ক, বিধবা ও শারিরীকভাবে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীর মাঝে সরকার এই ভাতা প্রদান করছে। তিনি বলেন, সরকার দারিদ্র্য বিমোচন ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচির লক্ষ্য ভিত্তিক সম্প্রসারণ ও এসব কর্মসূচির স্বচ্ছতা নিশ্চিতকরণের ওপর গুরুত্বারোপ করছে।
এর আগে, পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, সরকার ২০২০ সালের মধ্রে দারিদ্র্য বিমোচন হার ৮ দশমিক ৯ শতাংশ থেকে কমিয়ে চার শতাংশে আনতে সপ্তম পঞ্চ-বার্ষিক পরিকল্পনা (২০১৬-২০২০) গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী ও গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ ২০২১ সালের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ইতোমধ্যে নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশের মর্যাদা অর্জন করেছে।
মন্ত্রণালয়ের সূত্র মতে, ২০১৬ সালে ১৪ লাখ ৯০ হাজার ১০৫ জন শারীরিক প্রতিবন্ধীকে শনাক্ত করা হয়েছে।
তিনি বলেন, অস্বচ্ছল সুবিধাভোগী প্রতিবন্ধীরা মাসে পাঁচশ’ ও ছয়শ’ টাকা করে ভাতা পাচ্ছেন। অপরদিকে শারীরিক প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষার স্তর অনুযায়ী পাঁচশ’, ছয়শ’, সাতশ’ ও ১২শ’ টাকা করে অধ্যয়ন ভাতা পাচ্ছে।
মোট ৩১ লাখ ৫০ হাজার অসহায় বয়স্ক মানুষ পাঁচশ’ টাকা করে মাসিক ভাতা গ্রহণ করেন। ১১ লাখ ৫০ হাজার সুবিধাবঞ্চিত দরিদ্র, বিধবা ও স্বামী কর্তৃক নির্যাতিত নারীরা পাচ্ছেন মাসে পাঁচশ’ টাকা করে এবং ৭ লাখ ৫০ হাজার অস্বচ্ছল শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তি ছয়শ’ টাকা করে মাসিক ভাতা পাচ্ছেন।
সরকার ৭০ হাজার শিক্ষার্থীকে পাঁচশ’, ছয়শ’, সাতশ’ ও ১২শ’ টাকা করে অধ্যয়ন ভাতা প্রদান করছে।