বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন
  • ১ পৌষ, ১৪২৪
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৭ মার্চ ২০১৭

এলডিসি দেশগুলোর জন্য ডিএফকিউএফ সুবিধা প্রদানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি বাংলাদেশের আহ্বান


প্রকাশন তারিখ : 2017-03-17

যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে স্বল্পোন্নত (এলডিসি) দেশের ন্যায় বাংলাদেশী পণ্যের শুল্ক ও কোটামুক্ত (ডিএফকিউএফ) বাণিজ্য সুবিধা প্রদানের যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ।
যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি বাংলাদেশকে ডিএফকিউএফ সুবিধা দেয় তাহলে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে আরো পণ্য রফতানিতে সক্ষম হবে। এতে নারীর আরো ক্ষমতায়ন এবং চরমপন্থা দমনে বাংলাদেশ আরো সক্ষমতা অর্জন করবে।
বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন স্টেটের রিপাবলিকান কংগ্রেম্যান এবং বাণিজ্য বিষয়ক হাউস ওয়েজ অ্যান্ড মিলস সাব-কিমিটির চেয়ারম্যান দাভ রিচহাটের সঙ্গে ওয়াশিংটন ডিসিতে বৈঠককালে রাষ্ট্রদূত জিয়াউদ্দিন এ আহ্বান জানান।
আজ এখানে প্রাপ্ত এক বার্তায় এ কথা বলা হয়।
বৈঠককালে জিয়াউদ্দিন কংগ্রেসম্যানকে অবহিত করেন যে, স্বল্পোন্নত ১৪টি দেশকে যুক্তরষ্ট্রের বাজারে ডিএফকিউএফ সুবিধা বঞ্চিত করায় বৈষম্যের সৃষ্টি হয়েছে।
বর্তমানে ৪৮টি স্বল্পোন্নত দেশের মধ্যে ৩৪টি দেশ যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ডিএফকিউএফ সুবিধা ভোগ করছে।
রাষ্ট্রদূত কংগ্রেসম্যানকে অবহিত করেন স্বল্পোন্নত ৪৮টি দেশ ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে ডিএফকিউএফ সুবিধা পাচ্ছে। তিনি বলেন, সুবিচার ও স্বচ্ছতার বিবেচনায় মানবাধিকার ও আইনের শাসনের ক্ষেত্রে চ্যাম্পিয়ন যুক্তরাষ্ট্র অব্যই সবার জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করবে।
বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এসময় শিক্ষা, নারীর ক্ষমতায়ন এবং সন্ত্রাস দমনসহ বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরেন।
রাষ্ট্রদূত সকল ধরনের চরমপন্থা ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি কংগ্রেসম্যানের কাছে তুরে ধরেন।
রাষ্ট্রদূত সন্ত্রাস দমনে বাংলাদেশ এবং প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে চলমান সহযোগিতা এবং যুক্তরাষ্ট্রের তরফে গোয়েন্দা তথ্য বিনিময় এবং অন্যান্য সক্ষমতা উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরেন।
রাষ্ট্রদূত অবহিত করেন যে, ৪০ লাখের বেশি গার্মেন্টস শ্রমিক গার্মেন্টস শিল্পে কাজ করছে, যাদের ব্যাপক গরিষ্ঠ অংশই নারী। তারা সমাজ থেকৈ দারিদ্র্য দূরীকরণ এবং চরমপন্থার ভীতি রোধে সহায়ক ভূমিকা পালন করছে।
এছাড়াও বাংলাদেশ সরকার মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থাকে আধুনিকায়ন করছে, যাতে শিক্ষার্থীরা চরমপন্থার ধারণা থেকে রেহাই পায় এবং তারা সমাজে ভালভাবে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারে।
ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে কংগ্রেসম্যান ডিএফকিউএফ সুবিধাবঞ্চিত দেশগুলোর সঙ্গে অবশ্যই ন্যায়ানুগ বাণিজ্য সুবিধা প্রদানের প্রতি তার সমর্থন ব্যক্ত করেন।
বৈঠককালে দূতাবাসের মিনিস্টার (রাজনৈতিক) তৌফিক হাসান এবং বাণিজ্য বিষয়ক সাব-কমিটির ট্রেড কাউন্সেলর যোসুয়া ¯িœড এসময় উপস্থিত ছিলেন।