বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন
  • ১ পৌষ, ১৪২৪
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৬ এপ্রিল ২০১৭

মাগুরায় ২৮শ’ কৃষককে সরকারি বীজ, সার ও টাকা প্রদান


প্রকাশন তারিখ : 2017-04-06

মাগুরার চার উপজেলায় ২ হাজার ৮০০ কৃষকের মাঝে বিনা মূল্যে ধান,বীজ, সার ও নগদ টাকা প্রদান করা হয়েছে।
খরিপ-১ মৌসুমের আউশ প্রণোদনার আওতায় তাদের এ প্রণোদনা দেয়া হয়।
বুধবার দুপুরে শ্রীপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সর্বশেষ ২৪০ জন কৃষকের মাঝে সার ও বীজ বিতরণের মধ্য দিয়ে এই কর্মসূচি সম্পন্ন হয়েছে। এ সময় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো.আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ফৌজিয়া আক্তার, শ্রীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মসিয়ার রহমান, উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম ও বারইপাড়া গ্রামের কৃষক হবিবর রহমান। এর আগে জেলার সদর, শালিখা ও মহম্মদপুর উপজেলায় প্রণোদনার আওতায় বীজ, সার ও অর্থ প্রদান করা হয়।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানিয়েছে, খরিপ-১ মৌসুমের আউশ প্রণোদনার আওতায় ২ হাজার ৮০০ কৃষকের মাঝে ধানবীজ, সার ও নগদ টাকা বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে। এর মধ্যে সদর উপজেলার তালিকাভুক্ত ৬০০ উফশী আউশ, ২৪০ জন নেরিকা ধান, শ্রীপুরে ১৬০ জন উফসী আউশ চাষী, ৮০ জন নেরিকা ধান, শালিখায় ১০৮০ জন উফসী আউশ , ৪০০ জন নেরিকা ধান ও মোহম্মদপুর উপজেলায় ১৬০ জন উফসী আউশ, ৮০ জন নেরিকা ধান চাষীর মধ্যে ধান বীজ, সার ও নগদ টাকা বিতরণ করা হয়। উফসী আউস ধান চাষের জন্য ২ হাজার কৃষককে জনপ্রতি ৫ কেজি উচ্চ ফলনশীল বা উফশী জাতের আউশ ধান বীজ, ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার এবং সেচ সহায়তা, খরচ বাবদ ৪০০ টাকা দেওয়া হয়। অন্যদিকে ৮০০ কৃষককে ১০ কেজি উচ্চ ফলনশীল নেরিকা জাতের আউশ ধানবীজ, ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার এবং আগাছা নাশক বাবদ ৪০০ ও সেচ খরচ বাবদ ৪০০ টাকা দেওয়া হয়।