বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন
  • ৪ পৌষ, ১৪২৪
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩১st জানুয়ারি ২০১৭

যৌতুক প্রতিরোধ আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন


প্রকাশন তারিখ : 2017-01-31

কনেকে আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার অপরাধে সর্বোচ্চ ১৪ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও জরিমানার মতো কঠোর শাস্তির বিধান রেখে মন্ত্রিসভা ‘যৌতুক প্রতিরোধ আইন, ২০১৭’-এর খসড়ায় নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে।
তাছাড়া যৌতুকের দাবিতে বর পক্ষ কনেকে মারাত্মক জখম করলে আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড অথবা অনধিক ১২ বছর সশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করার পাশাপাশি দন্ডের অতিরিক্ত অর্থ দন্ড করা হবে।
আজ সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্ব অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।
বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, পূর্ববর্তী ১৯৮০ সালের যৌতুক প্রতিরোধ আইন ও এর পরবর্তী সংশোধিত সংস্কারগুলোর সমন্বয়ে এই খসড়া আইন প্রণয়ন করা হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, অপরদিকে কেউ যৌতুক দাবির মিথ্যা মামলা দায়ের করলে তাকে এক বছরের কারাদন্ড অথবা সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত করার বিধান রাখা হয়েছে।
এদিকে, সরকার দেশে সরকারি খাতে আরো দুটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এগুলো হচ্ছেÑ জামালপুরের মেলান্দহে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং নেত্রকোনায় শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়।
এ ব্যাপারে মন্ত্রিসভার আজকের বৈঠকে ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বিল-২০১৭’ এবং ‘ শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় বিল-২০১৭’ এই দুটি পৃথক প্রস্তাবে অনুমোদন দেয়া হয়।
শফিউল আলম বলেন, মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জামালপুর জেলার মেলান্দহের বর্তমান বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব ফিশারিজ কলেজকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উন্নীত করা হবে। অপরদিকে নেত্রকোনার জনগণের দাবির প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে নতুন প্রতিষ্ঠান ‘শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়’ প্রতিষ্ঠা করা হবে।
তাছাড়া মন্ত্রিসভা আজ ভূপৃষ্ঠের ও ভূতলের পানির উৎসের উন্নয়নের পাশাপাশি এর কার্যকর ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে ‘দ্য ইন্টিগ্রেটেড স্মল স্কেল ইরিগেশন পলিসি-২০১৭’-এর খসড়া নীতিগতভাবে অনুমোদন দিয়েছে।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এই নীতির আওতায় গোটা প্রক্রিয়ার তদারকির জন্য দুটি কমিটি গঠিত হবে। একটি উপজেলা পর্যায়ে উপজেলা চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে এবং অপরটি জেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসক ও বিএডিসি’র নির্বাহী প্রকৌশলীর যৌথ তত্ত্বাবধানে।
মন্ত্রিসভাকে মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন সংক্রান্ত ত্রৈমাসিক রিপোর্টও (অক্টোবর-ডিসেম্বর) অবহিত করা হয়।
তাছাড়া মন্ত্রিসভায় ভারতের সঙ্গে ‘ইন্টার এজেন্সি এগ্রিমেন্ট বিটুইন গ্লোবাল সেন্টার ফর নিউক্লিয়ার এনার্জি পার্টনারশিপ (জিসিএনইপি), ডিপার্টমেন্ট অব এটমিক এনার্জি, গভর্নমেন্ট অব ইন্ডিয়া এন্ড বাংলাদেশ এটমিক এনার্জি কমিশন (বিএইসি), মিনিস্ট্রি অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি, গভর্নমেন্ট অব বাংলাদেশ অন কো-অপারেশন রিগার্ডিং নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্ট প্রজেক্ট ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক সম্পাদিত হতে যাওয়া চুক্তির খসড়াও অনুমোদন দেয়া হয়।
মন্ত্রিসভায় ভারতের সঙ্গে সম্পাদিত হতে যাওয়া আরেকটি চুক্তি ‘এ্যারেঞ্জমেন্ট বিটুইন দ্য এটমিক এনার্জি রেগুলেটরি বোর্ড (এইআরবি) অব দ্য গভর্নমেন্ট অব ইন্ডিয়া এন্ড বাংলাদেশ এটমিক এনার্জি রেগুলেটরি অথরিটি (বিএইআরএ), দ্য গভর্নমেন্ট অব বাংলাদেশ ফর দ্য এক্সেজ অব টেকনিক্যাল ইনফরমেশন এ্যান্ড কো-অপারেন ইন দ্য রেগুলেশন অব নিউক্লিয়ার সেফটি এ্যান্ড রেডিয়েশন প্রটেকশন’ শীর্ষক চুক্তির খসড়াও অনুমোদন দেয়া হয়।
বৈঠকের শুরুতে ঐতিহাসিক আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার অন্যতম আসামী এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর মাহফুজুল বারীর মৃত্যুতে একটি শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা মাহফুজুল বারী ৭৫ বছর বয়সে গত ২৩ জানুয়ারি ঢাকায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।
বৈঠকে মন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট প্রতিমন্ত্রীগণ অংশ নেন। সংশ্লিষ্ট সচিবগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।